পাকিস্তানের কাশ্মীরে ‘গুপ্তধন’

283

-সাবা সিদ্দিকা সুপ্ত

পাকিস্তানের কাশ্মীরে উপত্যকা অংশে বসবাসকারী মানুষদের নিচেই রয়েছে কোটি টাকা সমমূল্যের গুপ্তধন। এই অঞ্চলের মাটির নিচে রয়েছে প্রায় লক্ষ মার্কিন ডলারের কাছাকাছি পরিমাণ রুবি পাথর যা উপযুক্ত আধুনিক যন্ত্রপাতির অভাবে উত্তোলন করা সম্ভব হচ্ছে না।
সেখানকার কিছু মূল্যবান পাথর ব্যাবসায়ীদের মতে মিয়ানমারে যেসব উচ্চ মানের রুবি পাওয়া যায় তেমন রুবিই লুকিয়ে আছে কাশ্মীরের মাটির নিচে যা উত্তোলন না করার ফলে অঞ্চলটি অনেকাংশে পিছিয়ে রয়েছে।
প্রাদেশিক নির্বাহী কমিটি অনুমোদিত একটি ভূতাত্ত্বিক জরিপ থেকে জানা গেছে, সম্প্রতি এই অঞ্চলের মাটির নিচে ৫০ হাজার কেজির মতো সোনা, কপার, রূপা ছাড়াও ৪০ হাজার কেজির মতো রুবির অস্তিত্ব উদ্ভাবন করা হয়েছে।
পাকিস্তানি কাশ্মীরের খনি ও শিল্পোন্নয়ন কোম্পানির (একেএমাইডিসি) মহাপরিচালক শহীদ আইয়ুব বলেন, এই অঞ্চলে যে পরিমাণ মূল্যবান পাথর রয়েছে, তা উত্তোলন করলে পুরো অঞ্চল প্রযুক্তিগত ও অন্যান্য ক্ষেত্রে বেশ এগিয়ে যাবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। ভারতের সাথে শেয়ারের সমস্যা সমাধান করতে পারলে এই মূল্যবান পাথরের সুবিধা ওই অঞ্চলের বাসিন্দা ভোগ করতে পারবে বলে তিনি আশাবাদী।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here