রোহিঙ্গা ইস্যুতে বোমা ফাটালেন বিবিসি সাংবাদিক

366

জুবায়ের ইবনে কামাল

 

রোহিঙ্গা ইস্যুতে নতুন বোমা ফাটালেন বিবিসির সাংবাদিক জনাথন হেড। মায়ানমার সরকার নিজেরাই রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে বানোয়াট প্রমান তৈরী করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

তার ভাষ্যনুযায়ী সরকারি সফরে সাধারণত সরকার যা দেখাতে চায় তাই দেখতে হয়। কিন্তু এর মধ্যেও সত্যটা খোঁজাই একজন সাংবাদিকের দায়িত্ব। সেই সফরে প্রথমে তাদের রাখাইন রাজ্যের মংডুর একটি স্কুলে নিয়ে যাওয়া হয়। কতৃপক্ষ থেকে জানানো হয় স্কুলে আশ্রয় নেয়া সবাই রোহিঙ্গা হিন্দু। তারা রোহিঙ্গা মুসলমানদের অত্যাচারে জর্জরিত হয়ে আছে। শেষ অবলম্বন হিসেবে তারা এই স্কুলে আশ্রয় নিয়েছে। সেখানে একজন মহিলার ইন্টার্ভিউ নিতে গেলে সেখানকার সেনা সদস্যরা জনাথন হেডকে বাধা দেন।

পরে তাদের সেনা প্রধানের একটি অফিসে নিয়ে ব্রিফিং করা হয়। সেখানে ছবি দিয়ে দেখানো হয় দুজন রোহিঙ্গা মুসলিম নিজেরাই নিজেদের ঘর পুড়িয়ে দিচ্ছে। কিন্তু জনাথন হেড দেখতে পান সেখানেই সেই স্কুলে আশ্রয় নেয়া সেই হিন্দু মহিলাকে। যাকে রোহিঙ্গাদের নির্যাতিত মানুষ হিসেবে সেনারা বলছিলো। অথচ ছবিতে দেখা যাচ্ছে তিনি ঘর পুড়াচ্ছেন। আর কতৃপক্ষ বলছে এরা রোহিঙ্গা মুসলিম নিজেরাই নিজেদের ঘর পুড়িয়ে দিচ্ছে। বুঝতে বাকী নেই মায়ানমার সরকার সকলের কাছে নিজেদের সাজানো নাটক সত্যি বলে চালিয়ে দিতে চাইছে।

বিবিসির দক্ষিন এশিয়ার প্রতিনিধি জনাথন হেড বিবিসিতে এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন দেখিয়ে বিষয়টি তুলে ধরেন। এরপর থেকেই বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বেশ সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

*সূত্র : বিবিসি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here