“এক্সোএলদের উপহার “

177

কোরিয়ান সংস্কৃতির প্রসার দিন দিন বেড়েই চলছে। কে পপ(কোরিয়ান পপ) মিউজিক সবার কাছে হয়ে উঠছে জনপ্রিয়। বাংলাদেশের তরুণ তরুণীদের একটি বড় অংশ এটির সাথে যুক্ত। জনপ্রিয় বিভিন্ন দলগুলোর একটি, কোরিয়ান চাইনিজ বয় ব্যান্ড এক্সো (EXO)। এই দলটি নিজেরা যেমন যুক্ত আছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবামূলক কর্মকাণ্ডের সাথে, ঠিক তেমনিভাবে তাদের ভক্ত, এক্সোএলরাও (EXO-L) সমগ্র বিশ্বব্যাপী সেবামূলক কাজ করে চলছে। বিশেষ করে দলের কাজ অথবা সদস্যদের জন্মদিন নতুবা কোনো নতুন অ্যালবাম রিলিজ ইত্যাদিকে উপলক্ষ্য করে এক্সোর ভক্ত সকল মানবতার জন্য অনেক ধরনের সহযোগিতা মূলক কাজ করে যাচ্ছে।তাদের এই উদ্যোগ গুলো সত্যিই প্রশংসার দাবীদার।

এরই সূত্র ধরে নয় জন সদস্যের এই দলের প্রধান ভোকালিস্ট কিম জং দে (স্টেজ নাম চেন,Chen) এর জন্মদিন উপলক্ষে “এক্সোএল এলায়েন্স বাংলাদেশ ” (EXOL Alliance Bangladesh) সংগঠনটি বাংলাদেশি এক্সোএলদের আর্থিক সহায়তায় পথশিশুদের আহার যোগানের পরিকল্পনা করে, যার নাম দেওয়া হয় “Make it count”, যেখানে রেডিও পার্টনার ছিলো ” জাগো এফএম ৯৪.৪”। বিগত ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, বেলা ১১ টায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে এক্সোএল স্বেচ্ছাসেবীরা তাদের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেন।এসময় তারা পথশিশুদের এবং বয়স্কদের আলাদা ভাবে সারিবদ্ধ করে,তাদের জন্য উপহার স্বরূপ খাদ্য বিতরণের কাজ করেন। এতে উপস্থিত জনগণের মধ্যে এক্সোর চেন সম্পর্কে আগ্রহের উদয় ঘটে। এক্সোএলদের এ প্রচেষ্টাকে বাহবা দেয়ার মাধ্যমে সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্য অনুপ্রাণিত করেন তারা। এই ইভেন্টে প্রায় অর্ধশতাধিক পথশিশু এবং গৃহহীন ব্যক্তিদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করা হয়।
সকলের মুখে তৃপ্তির হাসি দেখাই ছিলো এক্সোএলদের প্রধান উদ্দেশ্য।সবার মাঝে এই ছোট্ট খুশি ছড়িয়ে দেয়াটা বড় পাওয়া তাদের কাছে।

এক্সোএলদের ঐক্যতা আর তাদের ফ্যান্ডমের সকলের মাধ্যমে সম্ভব হচ্ছে নিরন্তর সাহায্যমূলক কর্মকাণ্ড। ভবিষ্যতেও এক্সোএলরা এক্সো এর জন্য তাদের ভালোবাসার প্রকাশ ঘটাবে এমন সুশৃঙ্খল কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে।